BangaliNews24.com

টাকা দিলেই মেলে ড্রাইভিং লাইসেন্স

টাকা দিলেই মেলে ড্রাইভিং লাইসেন্স
অগাস্ট ০৩
২০:৩৮ ২০১৮

বিশেষ প্রতিনিধি : টাকা দিলেই মেলে ড্রাইভিং লাইসেন্স। পরীক্ষা দেয়ারও দরকার পড়ে না। তবে এ জন্য লাইসেন্স গ্রাহককে গুণতে হয় নির্ধারিত ফি এর চেয়ে অতিরিক্ত অর্থ। বিআরটিএ থেকে লাইসেন্স পাওয়ার প্রক্রিয়ার প্রতিটি ধাপেই তৎপর দালাল চক্র। আর এ সুযোগে অদক্ষ ও অযোগ্যরা বসে পড়ছে গাড়ির ড্রাইভিং সিটে। সড়ক হয়ে পড়ছে অনিরাপদ।

নাদিম আহম্মেদ। সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত দেখা যায় মিরপুর বিআরটিএ অফিসের আশপাশে। কখনো অফিসের কর্তা ব্যক্তিদের কক্ষে। কিন্তু তিনি বিআরটিএ’র কেউ না। তাহলে এই অফিসে তার কাজ কি? নিজের মুখেই জানালেন তার কাজের কথা।

৫ বছর ধরে এভাবে বিআরটিএ অফিসে লাইসেন্স করে দেয়ার দালালির কাজ করছে এই যুবক। তার মতো আরো অন্তত কয়েক’শ দালালের হাতে জিম্মি লাইসেন্স নিতে আসা মানুষ। সরকার নির্ধারিত ৩ হাজার ৪’শ ৫৬ টাকা সরকার নির্ধারিত ফি হলেও অপেশাদার লাইসেন্সের জন্য তারা নিচ্ছে কমপক্ষে ৯ হাজার টাকা। আর পেশাদার লাইসেন্সের জন্য এক হাজার টাকা কম নেয় তারা।

বাড়তি ৫ হাজার টাকার মধ্যে নাদিমের মতো দালালরা পায় মাত্র ১ হাজার টাকা। বাকি টাকা কর্মকর্তাদের টেবিলে টেবিলে।

আর ড্রাইভিং লাইসেন্স, গাড়ির ফিটনেস বা অন্য কাজে দালালদের মাধ্যমে কাগজপত্র জমা না দিলে বিপাকে পড়তে হয় গ্রাহকদের।

এই দালাল চক্রের সাথে বিআরটিএ’র কতিপয় কর্মকর্তা-কর্মচারীর দারুণ সক্ষতা। আর তাদের কারণেই অদক্ষদের হাতে চলে যাচ্ছে ড্রাইভিং লাইসেন্স। সড়কে নেমে এরাই ঘটাচ্ছে দূর্ঘটনা। তবে, এমন প্রকাশ্য অনিয়মের অভিযোগও অস্বিকার করলেন মিরপুর বিআরটিএ অফিসের এই কর্মকর্তা।

বিআরটিএ’র হিসাব মতে চলতি বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত দেশে নিবন্ধিত হয়েছে ৩৪ লাখ ৯৮ হাজার ৬২০টি যানবাহন। এসব যানবাহনের বিপরীতে বৈধ লাইসেন্সধারী চালক আছে ১৮ লাখ ৬৯ হাজার ৮১৬ জন। দেশে বাস ও ট্রাকসহ ভারী যানবাহন আছে দুই লাখ ২০ হাজার ৭৬৫টি। এসব নিবন্ধিত যানবাহনের বিপরীতে চালকের লাইসেন্স দেয়া হয়েছে এক লাখ ৩৮ হাজার ৭৪৫টি। অর্থাৎ লাইসেন্স ছাড়াই ভারী যানবাহন চালাচ্ছে ৮২ হাজার চালক।

অন্যান্য খবর

BangaliNews24.com