BangaliNews24.com

সরকারি চাকরিতে কোটা নয়, শুধু মেধাকে বিবেচনার সুপারিশ

সরকারি চাকরিতে কোটা নয়, শুধু মেধাকে বিবেচনার সুপারিশ
অগাস্ট ১৪
০৯:৫৪ ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক : সরকারি চাকরিতে নিয়োগের ক্ষেত্রে প্রচলিত কোটা পদ্ধতি পুরোপুরি তুলে দেয়ার পক্ষে সরকারি কমিটি। তবে মুক্তিযোদ্ধা কোটা সংরক্ষণে উচ্চ আদালতের রায় থাকায় এ ব্যাপারে আদালতের পরামর্শ চাওয়া হবে বলে জানিয়েছেন কোটা পর্যালোচনা কমিটির প্রধান ও মন্ত্রিপরিষদ সচিব শফিউল আলম। মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে এসব জানান তিনি।

তেজগাঁওয়ে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয় মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠক। এতে সভাপতিত্বে করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৈঠকে কওমি মাদ্রাসার দাওরায়ে হাদিস এর সনদকে মাস্টার্স এর সমমান দিয়ে খসড়া আইনের নীতিগত অনুমোদন দেয় মন্ত্রিসভা।

পরে সচিবালয়ে বৈঠকের বিষয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম। তিনি জানান, প্রায় ১৫ লাখ কওমি মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের মূল ধারায় ফিরিয়ে আনতে সরকার এই উদ্যোগ নিয়েছে।

কোটা প্রসঙ্গে সাংবাকিদকদের প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রি পরিষদ সচিব ও কোট পর্যালোচনা কমিটির প্রধান শফিউল আলম বলেন, কমিটির সুপারিশ প্রায় চূড়ান্ত। কোটা পদ্ধতি তুলে দেয়ার পক্ষে একমত হয়েছে কমিটির সদস্যরা। মেধাকে প্রাধান্য দিকে সরকারকে মত দেবেন তারা।

বর্তমানে সরকারি চাকরিতে নিয়োগে ৫৬ শতাংশ পদ বিভিন্ন কোটার জন্য সংরক্ষিত। এর মধ্যে মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের জন্য সংরক্ষিত ৩০ শতাংশ। শিক্ষার্থীদের দাবির প্রেক্ষিতে কোটা পর্যালোচনা করতে মন্ত্রিপরিষদ সচিবের নেতৃত্বে ৭ সদস্যের কমিটি করে সরকার। ৯০ কার্য দিবসের মধ্যে তাদের প্রতিবেদন দেয়ার কথা।

অন্যান্য খবর

BangaliNews24.com