BangaliNews24.com

কক্সবাজারের মাতামুহুরী নদীতে গোসল করতে নেমে পানিতে ডুবে ৩ স্কুলছাত্রের মৃত্যু

কক্সবাজারের মাতামুহুরী নদীতে গোসল করতে নেমে পানিতে ডুবে ৩ স্কুলছাত্রের মৃত্যু
জুলাই ১৫
০০:০৮ ২০১৮

বাঙালিনিউজ২৪ ডেস্ক : কক্সবাজারের চকরিয়ায় মাতামুহুরি নদীর ভরাট চরে ফুটবল খেলে গোসল করতে নেমে ছয় স্কুলছাত্র নিখোঁজের পর একজন জীবিত ও তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। নিখোঁজ অপর দুইজনকে উদ্ধারে অভিযান চলছে।শনিবার দুপুর সাড়ে ৩টার দিকে চকরিয়া মাতামুহুরী নদীর ব্রীজের অদূরে এ ঘটনা ঘটে।
নিখোঁজ স্কুল ছাত্ররা হলো- চকরিয়া গ্রামার স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো.রফিকুল ইসলামের ১০শ্রেণী পড়ুয়া ছেলে সায়ীদ জাওয়াদ অরভি (১৫), আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেনের দুই ছেলে ১০শ্রেণী পড়ুয়া আমিরুল হোসেন এমশাদ (১৫) ও ৮শ্রেণী পড়ুয়া ছেলে আফতাব হোসেন মেহরাব (১২) , প্রদ্যুৎ ভট্টাচার্য্যর ছেলে ১০শ্রেণী পড়ুয়া তূর্ণ ভট্টাচার্য্য ও একই শ্রেণী শওকত আলীর ছেলে ফারহান বিন শওকত (১৫)। তারা সবাই চকরিয়া গ্রামার স্কুলের শিক্ষার্থী।

ব্যাপক সন্ধানের চার ঘন্টা পর জেলেরা জাল ফেলে সন্ধ্যা সাতটা থেকে সাড়ে সাতটার মধ্যে তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করে।তারা হলেন- আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেনের দুই ছেলে ১০শ্রেণী পড়ুয়া আমিরুল হোসেন এমশাদ (১৫) ও ৮শ্রেণী পড়ুয়া ছেলে আফতাব হোসেন মেহরাব (১২), শওকত আলীর ছেলে ফারহান বিন শওকত (১৫)। নিখোঁজ অপর দুইজনের সন্ধান অব্যাহত রয়েছে।

নদী পাড়ের কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী ও চকরিয়া গ্রামার স্কুলের শিক্ষক জাহেদুল ইসলাম বলেন, স্কুলের অর্ধ-বার্ষিক পরীক্ষা শেষ হয় শনিবার। পরীক্ষা শেষে আমাদের স্কুলের বিজ্ঞান বিভাগের ২২ জন ও অষ্টম শ্রেণীর এক ছাত্র মাতামুহুরী ব্রীজ সংলগ্ন নদীর ভরাট চরে ফুটবল খেলতে যায়। তারা দুইটা থেকে তিনটা পর্যন্ত ফুটবল খেলে দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে। খেলা শেষে নিকটস্থ একটি বাড়ি থেকে তারা পানি পান করে নদীতে গোসল করতে নামে। সাতজন চরের মধ্যে অবস্থান করলেও নদীর একপাশ দিয়ে দশজন ও অন্যপাশ দিয়ে ছয়জন নদীতে নামে। নদীতে নামা ছয়জন মাঝ নদীতে গোসল করতে নামামাত্রই চোরাবালিতে আটকে ডুবে যায়। এসময় মারুফুল ইসলাম জামি বিমর্ষ অবস্থায় হাবুডুবু খেতে থাকলে নদীতে থাকা একটি ডিঙ্গি নৌকার লোকজন থাকে জীবিত উদ্ধার করে প্রাইভেট হাসপাতালে নিয়ে যায়। অপর পাঁচজন নিখোঁজ হলে স্থানীয় লোকজনসহ দমকল বাহিনীর লোকজন তাদের জাল ফেলে ও ডুব দিয়ে টানা তিনঘন্টা সন্ধান করেও খোঁজ পায়নি।

পরে স্থানীয় একদল জেলে জাল নিয়ে খোঁজতে নামলে সন্ধ্যা সাতটার পর তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয় বলে চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী নিশ্চিত করেছেন।চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নুরুদ্দীন মুহাম্মদ শিবলী নোমান বলেন, স্থানীয়দের সহায়তায় ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা নিখোঁজ ছাত্রদের উদ্ধারে অভিযান চালাচ্ছে। সন্ধ্যা সাড়ে সাতটা পর্যন্ত তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বাকিদের উদ্ধারের অভিযান চলছে।

 

অন্যান্য খবর

BangaliNews24.com