BangaliNews24.com

আওয়ামীলীগ কর্মীদের সাবেক মন্ত্রী লতিফ বিশ্বাসকে সম্ভাব্য প্রার্থী ঘোষনা

আওয়ামীলীগ  কর্মীদের সাবেক মন্ত্রী লতিফ বিশ্বাসকে সম্ভাব্য প্রার্থী ঘোষনা
জুলাই ১৯
১৮:৩৫ ২০১৮

 

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ- নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আসন ভিত্তিক সংসদীয় এলাকায় হঠাৎ করে উড়ে এসে জুড়ে বসে নিজেকে রাজনৈতিক দলের প্রার্থী ঘোষনা করেন অনেকেই। জনগন তাকে চাক বা নাইবা চাক নির্লজ্ব এই সুবিধাবাদী মানুষ গুলোর কিছু যায় আসেনা। এলাকার মানুষের কল্যানে ভুমিকা না রাখা এসব কৌশলী ব্যক্তিরা হঠাৎ করেই কজন ডেকে মিডিয়ার সামনে নিজেকে এমপি প্রার্থী ঘোষনা করেন। পড়েন জনতার সমালোচনার মুখে। অন্যদের ক্ষেত্রে এরকম ঘটনা ঘটলেও সাবেক মন্ত্রী সিরাজগঞ্জ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল লতিফ বিশ্বাসের ক্ষেত্রে ঘটেছে ব্যতিক্রম। আওয়ামীলীগের স্বতঃফুর্ত নেতা-কর্মীরা ডেকে নিয়ে তারাই তাকে সিরাজগঞ্জ-৫ (বেলকুচি, এনায়েতপুর, চৌহালী) আসনে নৌকার সম্ভাব্য প্রার্থী ঘোষনা করেছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলার বেলকুচি উপজেলার দৌলতপুর ডিগ্রী কলেজ সম্মেলন কক্ষে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে দৌলতপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আলতাফ হোসেনের সভাপতিত্বে আব্দুল লতিফ বিশ্বাস প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এসময় বেলকুচি উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ইউসুফজী খান, সহ-সভাপতি গাজী ফজলুর রহমান মাখন, যুগ্ম সম্পাদক গাজী আব্দুল হামীদ আকন্দ, আতাউর রহমান রতন, দলের নেতা আব্দুল হান্নান তালুকদার, অধ্যক্ষ মাসুদ রানা, আলহাজ্ব পিয়ার হোসেন, আব্দুল হামিদ মোল্লা, ডাঃ মোকবুল হোসেন বাবু, সাইফুল ইসলাম, যুবলীগ নেতা আব্দুল আলীম, ছাত্রলীগের রবিউল ইসলাম, প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
বক্তারা বলেন, এখন প্রার্থী হবার মৌসুম। কাজ করুক আর না করুক। জনগনের পাশে থাক আর না থাক আমাদের এলাকায় বেশ কজন আওয়ামীলীগের প্রার্থী। তবে নিজেরাই নিজেকে প্রার্থী ঘোষনা করেছেন। ভোট দেব আমরা আর ওনারা নিজেরাই প্রার্থী হন। কোন দিন তাদের পাশে পাইনি, কাজের বেলায় ঠন ঠনাঠন। ওনারা দাড়ালেন আর আমরা ভোট দিয়ে দেব? আগে মাঠে ও দলের কর্মীদের পাশে থাকার যোগ্যতা অর্জন করতে হবে। তার পর আমরা ভেবে দেখবো। বক্তারা স্থানীয় এমপির সমালোচনা করে বলেন, আমরা এমন একজন এমপি পেয়েছি, তিনি শুধু তার ব্যবসায়ীক স্বার্থ নিয়েই ব্যস্ত। এলাকার উন্নয়ন ও দলকে শক্তিশালী করতে যথাযথ ভুমিকা রাখতে পারেনি। তার ছেলে আবার নৌকার টিকিট চান? লজ্জা থাকা উচিৎ। লতিফ বিশ্বাস ছাড়া কেউ নৌকা নিয়ে বিজয়ী হতে পারবেনা। কারন সুখে, দুঃখে তাকেই একমাত্র কাছে পাই আমরা। আমাদের নিজেদের কল্যাণের জন্যই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে লতিফ বিশ্বাসের জন্য আমরা নৌকার টিকিট চাই।
এরপরই উপস্থিত দু শতাধীক আওয়ামীলীগ নেতা-কর্মীরা দাঁড়িয়ে সামনে অতিথির আসনে আব্দুল লতিফ বিশ্বাসকে প্রার্থী ঘোষনা করেন। এসময় লতিফ বিশ্বাস বলেন, আমাদের সকলকে মনে রাখতে হবে নৌকার বিজয় যদি না হয়, সেখ হাসিনা যদি প্রধানমন্ত্রী না হয় তাহলে দেশের সামগ্রীক উন্নয়ন ব্যহত হবে। দেশ জুড়ে জামাত-বিএনপি জঙ্গী তৎপরতা চালিয়ে মানুষ খুন করে শান্তি ব্যহত করবে। তাই জনগনের কাছের গিয়ে ভোট ভিক্ষা চাইতে হবে। নিজেদের কোন্দল ভুলে বঙ্গবন্ধুর নৌকার জন্য কাজ করতে হবে। তবেই আমরা জাতি হিসেবে উন্নতির শিখরে অবতীর্ন হতে পারবো।

অন্যান্য খবর

BangaliNews24.com